গর্ভবতীকালীন ফাটা দাগ দূর হবে এক মাসে

অনেকেই গর্ভবতীকালীন সময়ে পেট, বুক, ঘাড়, কোমর সহ ত্বকে ফাটা সমস্যায় ভোগেন। এই সমস্যা আপনাদের বেশ পিড়া দেয়। নিজের কাছে নিজেকে যেনো অন্যরকম মনে হয়। স্বাভাবিকভাবে হীনমন্যতায় ভোগেন। এই সমস্যায় আপনাকে ভালো উপকার দেবে একটা প্যাক। যেটা তৈরিতে আপনার খরচ তেমন হবেনা। স্বাভাবিকভাবে আপনার বাসায় যে প্রসাধনী রয়েছে তা ব্যবহার করেই পেতে পারেন সুন্দর কোমল টানটান ত্বক।

 

 

 

গর্ভবতীকালীন হোক আর যে কারণেই হোক তলপেটের ফাটাদাগ, ঘাড়ের কাছে ফাটা দাগ, স্তনের ফাটা দাগ সব দাগ নিমিষেই দূর করবে ছোট একটি ঘরোয়া প্যাকে। যেটিতে আপনার শ্রম যাবে না অর্থ যাবে না শুধু আপনাকে সময় দিতে হবে এবং সেটা নিয়মিত। একমাস ব্যবহার করলে আপনি আপনার ত্বকের পরিবর্তন নিজেই দেখে অবাক হবে।

যেহেতু আপনার শ্রম আর অর্থ যাচ্ছে না আপনি ব্যবহার করেই দেখতে পারেন। আসুন আপনার ফাটা দাগ দূর করে কিশোরী বয়সের মত টানটান মসৃণ ত্বক কিভাবে পাবেন জেনে নেযা যাক।

ফাটা দাগ দূর করতে আপনার ২টি মাত্র উপাদান লাগবে। যার একটা আপনার ঘরে থাকবেই আর অন্যটা না থাকলে বাজার থেকে কিনে আনতে পারবেন। একটা হলো অ্যালোভেরা জেল আর দ্বিতীয়টা হলো নারিকেলের তেল। খাঁটি তেল হলে ভালো না হলে সমস্যা নেই বাজার থেকে আনা নারিকেল তেলেও হবে।

এবার আসুন কিভাবে এটি ব্যবহার করবেন জেনে নিন। প্রথমে ১ টেবিল চামচ করে নারিকেল তেল এবং ১ টেবিল অ্যালোভেরা জেল নিন। সেটা নাড়তে নাড়তে দুটি উপাদান একত্রে করুন। আঠালো একটা মিশ্রণ হয়ে গেলে সেটিকে ফাটা স্থানে ম্যাস্যাজ করুন। ৫ মিনিট ম্যাসেজ করে সারারাত রাখুন।

রাতে ঘুমানোর আগে ব্যবহার করলে ভালো ফল পাবেন। এভাবে টানা এক মাস ব্যবহার করুন দেখবেন আপনার ফাটা দাগ দূর হয়ে মসৃণ ত্বক পাবেন। ১৫ দিনেই আপনি আপনার পরিবর্তন লক্ষ্য করবেন। কিন্তু ধৈর্য ধরে প্যাকটি ব্যবহার করুন কোনো রকম আলসেমি না রেখে। আর একটা কথা ভালোমানের অ্যালোভেরা জেল কিনবেন। একটা ভালোমানের অ্যালোভেরা জেল কিনতে আপনার ২৫০-৩০০ টাকা খরচ পড়বে।