আইসিউতে অধ্যাপক জাফর ইকবালক, যা বললেন চিকিৎসক

বিশিষ্ট লেখক ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে ছুরিকাঘাত করেছে এক যুবক। তার আঘাত মাথায় লেগেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তার মাথায় সিটি স্ক্যান করা হয়েছে।

এরপর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ড. জাফর ইকবালকে অপারেশন থিয়েটারে নেওয়া হয়। তিনি শঙ্কামুক্ত রয়েছেন বলে চিকিৎসকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

 

জানা গেছে, অপারেশন থিয়েটারে নেওয়ার আগে তার কাছে একজন জানতে চান স্যার কেমন লাগছে। এসময় তিনি বলেন আমি ওকে আছি।

ঘটনার পরপরই রক্তাক্ত অবস্থায় ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১১ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

 

শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে এ ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রনিক অ্যান্ড ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং- এর এক উৎসবের সভামঞ্চে অধ্যাপক জাফর ইকবাল সোফায় বসেছিলেন। এ সময় হঠাৎ মঞ্চের পেছন থেকে এক যুবক এসে তাকে ছুরিকাঘাত করেন।

 

ছুরিকাঘাত করে পালানোর সময় উপস্থিত ছাত্ররা এক যুবককে ধরে গণপিটুনি দেন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষেকেরা এসে তাকে উদ্ধার করে শিক্ষাভবন (এ)- এর ভেতরে নিয়ে যান। তার নাম পরিচয় এখনো জানা যায় নি।

অধ্যাপক জাফর ইকবালকে ছুরিকাঘাতের খবরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাৎক্ষণিকভাবে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেন। তারা শিক্ষাভবনের (এ) ফটক ভেঙে ফেলেন।

ক্যাম্পাসে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বাড়তি পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে সিলেট মেট্রোপলিটনের এডিসি আবদুল ওহাব বলেন, অধ্যাপক জাফর ইকবালকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

গণধোলাইয়ে অজ্ঞান হামলাকারী :
এদিকে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলাকারীর বয়স আনুমানিক ২৪ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে জানা গেছে। তবে এখনো তার পরিচয় জানানো হয়নি। তাকে শাবি ক্যাম্পাসে পুলিশ হেফাজতে আটক রাখা হয়েছে।

হামলার ঘটনার পরপরই তাকে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ ও উপস্থিত শিক্ষার্থীরা ধরে ফেলে। উত্তেজিত শিক্ষার্থীরা তাকে ধরার পর মারধর করেছে। হামলাকারী আহত হয়ে অজ্ঞান অবস্থান আছে। তার বয়স আনুমানিক ২০-২৫। তবে এখনও তার পরিচয় জানা যায়নি।

জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম জানান, হামলাকারীকে শাবি ক্যাম্পাসেই পুলিশ হেফাজতে আটক রাখা হয়েছে।