বিজয় সেতুপতির মতো ‘অভিনয় করার কথা’ স্বপ্নেও ভাবি না: হৃতিক

দীর্ঘ তিন বছর পর বড় পর্দায় দেখা মিলবে বলিউড তারকা হৃতিক রোশানের। আসছে ৩০ সেপ্টেম্বর ভারত সহ ১০০টি দেশের সিনেমা হলে মুক্তি পাবে ‘বিক্রম বেদা’।

তার ঠিক আগেই এই সিনেমাকে কেন্দ্র করে বিজয় সেতুপতির সঙ্গে তুলনা করা হলো হৃতিককে! সেই প্রসঙ্গেই এবার মুখ খুললেন অভিনেতা।

মঙ্গলবার দীর্ঘ সময় পর বলিউডে কামব্যাক করা নিয়ে দিল্লিতে এক প্রেস কনফারেন্সে মুখ খুলেছেন হৃতিক। এদিন ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে হৃতিক বলেন, “এটার বিষয় আমার কিছু করার নেই।’

তিনি আরও জানান, “আমি আমার অংশ করেছি। আমার নিয়ন্ত্রণে একমাত্র জিনিস হল আমার সেরাটা দেওয়া। এইটুকুই। একটাই প্রার্থনা আছে যা আমি প্রতিদিন বলি

‘আমি যা করতে পারি তা পরিবর্তন করার জন্য আমাকে সাহস দিন, যা পরিবর্তন করা যায় না তা গ্রহণ করার প্রশান্তি দিন এবং পার্থক্যটি জানার অন্তর্দৃষ্টি দিন’। একবার এতটুকু জানতে পারলেই আমি সন্তুষ্ট।”

তামিল ‘বিক্রম বেদা’ সিনেমাতে বিজয় সেতুপতি যেভাবে চরিত্রটাকে তুলে ধরেছে, তা পুনরাবৃত্তি করতে পারবেন না জানিয়েছেন হৃতিক।

অভিনেতা জানান, আমি জানি বিজয় সেতুপতি তার অংশটি কতটা আশ্চর্যজনকভাবে করেছিলেন। আমি স্বপ্নেও ভাবতে পারি না যে আমি সেই স্তরটি অর্জন করব। তবুও, আমি আমার সেরাটা দিয়েছি। আমি যা করেছি তাতে আমি খুশি।

এ দিন হৃতিক আরও জানান, আপনি যখন একটি চরিত্র করেন, যা করা হয়েছে তা পুনরাবৃত্তি করতে পারবেন না। আপনি যদি মনে করেন ‘ও এটা করেছে, তাই আমিও এটাই করব’, এইটা ভাবাটা খুব একটা বুদ্ধিমানের বিষয় না।

সহজ কথা হল, প্রত্যেকটা ব্যক্তি আলাদা। সুতরাং, যদি আমি এটাকে যেভাবে দেখি সেভাবেই করি তাহলে এটি নিজে থেকেই ভিন্ন, নতুন এবং সৎ হবে।

‘বিক্রম বেদা’ সিনেমাটির প্রযোজনা করছেন নিরাজ পান্ডে এবং পরিচালনায় রয়েছেন পরিচালক জুটি পুস্কার-গায়ত্রী। তামিল সিনেমাটিও তারা পরিচালনা করেছিলেন। সাইফ-হৃতিক ছাড়াও ছবিতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন রাধিকা আপ্তে এবং রোহিত শরফ।

সিনেমাটিতে সাইফ অভিনয় করছেন একজন পুলিশ অফিসারের চরিত্রে। অন্যদিকে হৃতিক একজন গ্যাংস্টারের চরিত্রে। ইতোমধ্যেই তাদের লুক দর্শকের মাঝে বেশ সাড়া ফেলেছে।

সূত্র: মানি কন্ট্রোল