বাংলাদেশে তৈরি হবে হুন্দাই গাড়ি, কারখানা উদ্বোধন

প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে তৈরি হতে যাচ্ছে হুন্দাই গাড়ি। বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় কোরিয়ান অটোমোবাইল জায়ান্ট হুন্দাইয়ের প্রযুক্তিগত সহায়তায় দেশের বাজারে জনপ্রিয় গাড়িটি আনতে যাচ্ছে ফেয়ার টেকনোলজি।

সেই লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি) বঙ্গবন্ধু হাই-টেক পার্কে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ফেয়ার টেকনোলজি-হুন্দাই কারখানার উদ্বোধন করা হয়। জনপ্রিয় এসইউভি ক্রেটা এই কারখানাটিতে তৈরি হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন বলেছেন, ‘‘স্মার্ট বাংলাদেশের জাতীয় রূপকল্প বাস্তবায়নের জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ ছিল কারখানাটির উদ্বোধন। সড়কে চলাচলকারী দ্রুতগতির ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ হুন্দাই এসইউভিগুলো দ্রুতগতিতে চলা বাংলাদেশকেই প্রতীকায়িত করবে।’’

কারখানাটিতে বছরে ৩,০০০টি ক্রেটা এসইউভি উৎপাদন করা সম্ভব জানায় ফেয়ার টেকনোলজি-হুন্দাই এর উদ্যোক্তারা। তাদের মতে, প্রতিদিন এক শিফট পরিচালনার মাধ্যমে ওই কারখানাতেই বছরে ৩,০০০টি ক্রেটা এসইউভি উৎপাদন করা সম্ভব হবে।

সংখ্যাটিকে ধীরে ধীরে বছরে ১০ হাজারে উন্নীত করা হবে। প্রতিটি ক্রেটা উৎপাদনের জন্য ১ হাজারেরও বেশি পার্টস এবং বিভিন্ন স্তরের পেইন্টিং আমদানি করা হবে।

ফেয়ার টেকনোলজি-হুন্দাই কারখানায় ৩০০ জনের কর্মসংস্থান তৈরি করবে বলে আশা তাদের। যার মূল অংশ হবে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার এবং হুন্দাই দ্বারা প্রশিক্ষিত টেকনিশিয়ানদের জন্য।

সদ্য উদ্বোধন হওয়া কারখানাটি কমপ্লিটলি নকড ডাউন (CKD) যন্ত্রাংশ আমদানি করা এবং সেগুলোকে অ্যাসেম্বল করার পরিকল্পনা করছে। CKD বলতে, নির্দিষ্ট গাড়ির জন্য তৈরি নির্দিষ্ট যন্ত্রাংশগুলো যন্ত্রাংশ তৈরির কারখানা থেকে সেগুলোকে বিভিন্ন

দেশের অ্যাসেম্বল কারখানায় পাঠানো যন্ত্রাংশগুলোকে বোঝানো হয়। গাড়ির চেসিস এবং বডি পার্টসগুলো আসার পর সেগুলোকে ফেয়ার টেকনোলজির পেইন্ট শপে রঙ করা হবে।

উদ্যোক্তারা জানায়, এখন হুন্দাই ক্রেটাই স্থানীয়ভাবে তৈরি একমাত্র মডেল হবে, তবে বছরের শেষ নাগাদ আরেকটি মডেল অন্তর্ভুক্ত করবে তারা।

স্থানীয় উৎপাদনের ফলে হুন্দাই ক্রেটার বর্তমান মূল্য ৪২ লক্ষ থেকে বেশ কয়েক লাখ টাকা কমে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে। ফেয়ার টেকনোলজিও আশা করছে, স্থানীয় উৎপাদনের ফলে বিক্রিও ধীরে ধীরে বাড়বে।

‘স্টেপ ইনটু দ্য ফিউচার’ মূলমন্ত্র নিয়ে ফেয়ার টেকনোলজি-হুন্দাই বঙ্গবন্ধু হাই-টেক পার্কের দুটো শিল্প প্লট নিয়ে কারখানাটি প্রতিষ্ঠা করেছে।