এবার জাপানে ওমিক্রন শনাক্ত

করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে আক্রান্ত হিসেবে প্রথম একজন রোগী পাওয়ার তথ্য নিশ্চিত করেছে জাপান।

মঙ্গলবার দেশটিতে এক ব্যক্তির শরীরে করোনার এই ধরন শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

জাপানের মন্ত্রিপরিষদের মুখ্য সচিব বলেছেন, নামিবিয়া থেকে আসা এক ব্যক্তির ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হয়েছে। দেশে ফেরার পর বিমানবন্দরে পরীক্ষায় ৩০ বছরের ওই ব্যক্তির করোনা শনাক্ত হয়েছিল।

পরে জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ে তার শরীরে ওমিক্রনের উপস্থিতি ধরা পড়েছে বলে দেশটির গণমাধ্যমের খবরে জানানো হয়েছে। ওমিক্রনে আক্রান্ত ব্যক্তি কোন দেশের নাগরিক তা প্রকাশ করেনি জাপানের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ।

তবে ওই ব্যক্তিকে বর্তমানে একটি মেডিক্যাল স্থাপনায় কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। এঝাড়া তার ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শে আসা লোকজনকে শনাক্ত করার কাজ শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার।

দক্ষিণ আফ্রিকায় করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন শনাক্ত হওয়ার পর মঙ্গলবার বিদেশিদের জন্য সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছে জাপান।

করোনাভাইরাসের আগের সব ভ্যারিয়েন্টের তুলনায় সম্ভাব্য অতি-সংক্রামক ওমিক্রন গত বুধবার (২৪ নভেম্বর) দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথম শনাক্ত হয়। এরপর থেকে এই ভ্যারিয়েন্ট অস্ট্রেলিয়া, বেলজিয়াম, বতসোয়ানা, ব্রিটেন, কানাডা, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, হংকং, ইসরায়েল, ইতালি, নেদারল্যান্ডস ও স্কটল্যান্ডে শনাক্ত হয়েছে।

ওমিক্রনকে ‘উদ্বেগজনক ভ্যারিয়েন্ট’ হিসেবে তালিকাভূক্ত করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) রূপান্তরিত এই ধরন ‘অত্যন্ত ঝুঁকি’ তৈরি করতে পারে বলে সতর্ক করেছে। পাশাপাশি ভাইরাসের এই ধরন মোকাবিলায় বিশ্বকে দ্রুত প্রস্তুতি নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে জাতিসংঘের স্বাস্থ্যবিষয়ক এই সংস্থা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.